Home খবর আতঙ্কের দিনরাত

আতঙ্কের দিনরাত

বাঁকুড়া সদর শহর থেকে 72 কিলোমিটার দূরে বাঁকুড়া জেলার এক্কেবারে পূর্বপ্রান্তের বর্ডার সংলগ্ন পিছিয়ে পড়া ছোট্ট একটি গ্রাম ভাসনা , গ্রামের ওপর রোষ পড়েছে দামোদর নদের , বর্ষার সময় আকাশে সিঁদুরে মেঘ দেখলেই বাঁকুড়ার ইন্দাস ব্লকের ভাসনা গ্রামের বাসিন্দাদের ঘুম উড়ে যায় । কারন দামোদরের ভয়াল ভাঙন।

 

আতঙ্কের দিনরাত ( বাঁকুড়া )

আতঙ্কের দিনরাত ( বাঁকুড়া )

Gepostet von ACN Life News am Montag, 24. August 2020

দামোদরকে একসময় বাংলার দুঃখের নদ বলা হত। আজ দামোদরের সেই দুর্নাম অনেকটাই ঘুচেছে। কিন্তু ভাসনা গ্রামের মানুষের কাছে দামোদর যেন আজো বড় দুঃখের নদ। ভাসনা গ্রামের কাছে দামোদর বড় খাই খাই।

 

বর্ষা এলে দুকূল ছাপিয়ে যখন দামোদর নদ বইতে থাকে তখন তার করাল সর্বগ্রাসী চেহারার কাছে হার মানে ভাসনা গ্রামের পাশে থাকা নদী পাড়ের সোনার ফসল ফলানো জমি গুলি। প্রতিবছর পাড় ভাঙতে ভাঙতে নদ এগিয়ে আসতে থাকে গ্রামের কাছে।

 

বালি মাফিয়াদের দৌরাত্ম সেই প্রক্রিয়কেই যেন আরো ত্বরান্বিত করে দিয়েছে। একসময় যে দামোদর গ্রাম থেকে প্রায় এক থেকে দেড় কিলোমিটার দূর দিয়ে বয়ে যেত সেই দামোদরই এখন গ্রাম থেকে একশো মিটার দূরে ফুঁসছে। একদিকে বালি মাফিয়াদের রমরমা অন্যদিকে প্রশাসনের নির্বিকার মনোভাব দুইয়ের জেরে ধীরে ধীরে দামোদর দ্রুত এগিয়ে আসছে গ্রামের দিকে। এখন গ্রাম থেকেই কানে আসে ঝুপ ঝাপ পাড় ভাঙার শব্দ।

 

এখন আস্ত ভাসনা গ্রাম দামোদর নদের গর্ভে তলিয়ে যাওয়া যেন শুধুই সময়ের অপেক্ষা। স্বাভাবিক ভাবে সাধের জমিজমা, ঘর বাড়ি সব হারানোর আশঙ্কাতে এখন রাতভর দু চোখের পাতা এক করতে পারেন না ভাসনা গ্রামের মানুষ। সরকারের কাছে বহু আবেদন নিবেদন করেছেন গ্রামের মানুষ।

 

কিন্তু প্রাপ্তির খাতায় থেকে গেছে সেই শূন্যতা। দামোদরের পাড় বাঁধিয়ে ভাসনা গ্রামকে রক্ষা করতে কি এগিয়ে আসবে না প্রশাসন? সরকারি ভাবে একটুও কি ভাবা হবে না গ্রামের কৃষিজীবী গরিব গুর্বো মানুষগুলোর কথা? বলবে সময়ই।

Most Popular

বিয়ের আগে কিয়ারাকে নিয়ে এ কী বললেন সিড ?

সিড-কিয়ারার প্রেমের গুঞ্জন বহু দিন ধরেই চলছিল বলিউডে৷ কিন্তু কেউই কখনও প্রকাশ্যে এ বিষয়ে মুখ খোলেননি৷ অবশেষে বাজল সানাই৷ আগামী সোমবার, ৬ ফেব্রুয়ারি জয়সলমেরে...

বইমেলায় নিজের লেখা জেরক্স করে বিক্রি করছেন মাত্র 5 টাকায়।

মুঠোফোনের পাতায় যতই আমরা প্রতিভাবান শিল্পীদের পরিচয় পাই না কেন, এমন অনেক ঘটনা থেকে থাকে যা আমাদের বাস্তব জীবনে সামনে থেকে উপলব্ধি করতে হয়।বর্তমানে...

দেওয়াল খুঁড়তেই বেরিয়ে এল ৪৭ লক্ষ টাকা, কি করলেন সেই টাকা দিয়ে?

একটি পুরনো বাড়ি ভাঙতে গিয়ে দেওয়ালের মধ্যে লুকনো ৬টি টিনের কৌটো উদ্ধার করেছেন সে দেশের এক ব্যবসায়ী। সেই কৌটো থেকে তিনি উদ্ধার করেন ৪৭...

আফ্রিকা মহাদেশের দক্ষিণ এর বোদি উপজাতির নারীদের মেদবহুল পুরুষ পছন্দ

ইথিওপিয়ার দক্ষিণে ওমো উপত্যকার প্রত্যন্ত অঞ্চলে বাস বোদি উপজাতির। সেই উপজাতির মহিলাদের পছন্দ গোল ভুঁড়িযুক্ত পুরুষেরা।পৃথিবীতে এমনও উপজাতি রয়েছে যেখানে সুঠাম চেহারা নয়, বরং...

Recent Comments