Home ৬ মাস জানেন কী দেবী সরস্বতীর কারনেই ৬ মাস ঘুমাতেন কুম্ভকর্ণ,কিন্তু কী এমন করেছিলেন...

জানেন কী দেবী সরস্বতীর কারনেই ৬ মাস ঘুমাতেন কুম্ভকর্ণ,কিন্তু কী এমন করেছিলেন বিদ্যার দেবী?

রামায়ণ তো কমবেশি অনেকেই পড়েছেন ।সকলেরই জানা। রামায়নে কুম্ভকর্ণ হলেন রাবনের ভাই। আমরা জানি যে ,কুম্ভকর্ণ ছয়মাস ঘুমিয়ে কাটাতেন। তবে কি প্রথম থেকেই এরকম ছিলেন নাকি ছিলেন না?জানুন যে কুম্ভকর্ণ কেন ছয়মাস ঘুমাতেন। তিনি একবার জাগতেন খাবার খাওয়ার কারনে।তবে কুম্ভকর্ণ কিন্তু প্রথম থেকেই এভাবে ঘুমাতেন না।এই নিয়ে একাধিক মতবাদ আছে।

তার একটি হল যে কুম্ভকর্ণ বহু তপস্যা পর ব্রহ্মা তাকে একটি বর দিতে এসেছিলেন।সেই বর স্বরূপ ইন্দ্রের আসন চাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন। তারপর
দেবরাজ ইন্দ্র এটি জানতে পেরে তিনি দেবী সরস্বতীকে কুম্ভকর্ণের এই বর চাওয়া থেকে আটকাতে বলেন।তাই দেবী সরস্বতী কুম্ভকর্ণের বর চাওয়ার সময় তার জিভ আটকে ধরে। আর তাই কুম্ভকর্ণ ইন্দ্রাসন চাওয়ার বদলে নিদ্রাসান উচ্চারন করেন।তারপর থেকে কুম্ভকর্ণ ছয়মাস ঘুমিয়ে কাটাতেন।

আরেকটি হল যে যখন রাবন, বিভীষণ এবং কুম্ভকর্ণ ব্রহ্মার কঠোর তপস্যা করছিলেন, তখন ব্রহ্মা তাদের উপর প্রসন্ন হয়ে তাদের সামনে প্রকট হন। রাবন ও বিভীষণকে তাদের ইচ্ছানুসার বর দেন।কিন্তু ব্রহ্মা কুম্ভকর্ণের কাছে যাওয়া নিয়ে চিন্তিত ছিলেন। কারন ব্রহ্মা ভেবেছিলেন যে যদি কুম্ভকর্ণ পেট ভরে ভোজন করেন তাহলে খুব শীঘ্রই সম্পূর্ণ বিনষ্ট হয়ে যাবে।আর সেই কারনের সরস্বতী কুম্ভকর্ণের মতিভ্রম করার জন্যে বরদান চাওয়ার আগেই সরস্বতী তার জিভ আটকে দেয়।আর তাই কুম্ভকর্ণ যে বরদান প্রাপ্তি করতে চেয়েছিলেন তা আর সফল হয় না। আর তার পরিবর্তে কুম্ভকর্ণ ছয়মাস পর্যন্ত ঘুমিয়ে থাকার বর চান যার ফলে কুম্ভকর্ণ ছয়মাস ঘুমিয়ে কাটাতেন।

Most Popular

পোস্ত কীভাবে এল? দেখুন বিস্তারিত

পেঁয়াজ বা রসুন ছাড়াই রান্না করা এই পদটি প্রতিটি বাঙালি পরিবারের সবচেয়ে সহজ, আরামদায়ক এবং প্রধান নিরামিষ খাবার। পোস্তবাঁটার (Posto Bata) অনন্য স্বাদ, কাঁচা...

রাস্তার ধারে গাছগুলিতে করা হয় সাদা রং ,তবে জানেন কি, কেনো করা হয় ?

রাস্তা দিয়ে পারাপার করার সময় চোখের সামনে অনেক কৌতূহল পূর্ণ জিনিসপত্র ধরা পড়ে। সেই সকল কৌতূহল জিনিসপত্র সম্পর্কে জানার ইচ্ছেও কম থাকে না। সেই...

মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচারের পর কেমন আছেন মুকুল রায়?

তাঁর মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার করতে হল। আপাতত তিনি বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।সূত্রের খবর, ভুলে যাওয়া থেকে শুরু করে, ব্যালেন্সিংয়ের সমস্যা হচ্ছে প্রবীণ...

শিয়ালদহ মেন শাখায় ট্রেনের দুর্ভোগ বেশ কিছু দিন ধরেই চলছে,নাজেহাল যাত্রীরা।

সকাল ১০.৪০ মিনিটে ডাউন ভাগীরথী এক্সপ্রেস শিয়ালদহ পৌঁছানোর কথা থাকলেও, ওই ট্রেন এ দিন বিকেল চারটের পর গন্তব্যে পৌঁছোয়। ক্ষোভে ফেটে পড়েন যাত্রীরা। সকাল...

Recent Comments