Home আজকের খবর খবরের জের : দৃষ্টিহীন বিশুয়ার পাশে টিএমসিপি

খবরের জের : দৃষ্টিহীন বিশুয়ার পাশে টিএমসিপি

আমাদের খবরের জেরে সাহায্য পেল দৃষ্টিহীন বিশুয়া দাস(৬৫)। মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর-১ নং ব্লকের মহেন্দ্রপুর জিপির ভবানীপুর গ্রামের বাসিন্দা বয়স পঁয়ষট্টির পৌঢ়া দৃষ্টিহীন বিশুয়াবাবুর পরিবারের জীবন দুর্দশার কথা আমাদের সংবাদ মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। খবরের জেরে মঙ্গলবার তার বাড়িতে গিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন হরিশ্চন্দ্রপুর-১ নং ব্লকের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্যরা। এদিন তারা অসহায় পরিবারটিকে চাল,ডাল ও কিছু অর্থীক সাহায্য করেন বলে খবর।

উল্লেখ্য দৃষ্টিহীন বিশুয়া-স্ত্রী,ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে একটি মাত্র আঁটোসাঁটো ভাঙা ঘরে পলিথিন টাঙিয়ে কোনোরকমে দিনগুজরাণ করেন।মিলেনি প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার ঘর, হয়নি প্রতিবন্ধী সংশাপত্রও। প্রায় ৩৫ বছর ধরে অন্ধ অবস্থায় বাড়িতে বসে রয়েছে সে। চুলে পাক ধরেছে। চামড়া কুঁচকে গেছে।বয়সের ভারে নুয়ে পড়েছে। দৃষ্টিহীন বিশুয়া একাই চলাফেরা করতে পারে না। একমাত্র ছেলে বললাম দাস বাবাকে নিয়ে হাঁটা-চলা করে।

স্ত্রী কুশমি দাস দিনমজুর করে পরিবারের মুখে দুমুঠো ভাত তুলে দেন।যেদিন কাজ জোটে না সেদিন তাদেরকে হয় অর্ধাহারে না হয় অনাহারে থাকতে হয়। তাদের জীবনের বেঁচে থাকার লড়াইয়ের কথা শুনে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন ছাত্র পরিষদের সদস্যরা।

এদিন উপস্থিত ছিলেন মালদা জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সম্পাদক কৃষ্ণ মহালদার সহ ছাত্র পরিষদের সদস্যরা।

হরিশ্চন্দ্রপুর-১ নং ব্লকের তৃনমূল কংগ্রেসের ছাত্র পরিষদের সহ-সভাপতি অবিনাশ দাস জানান, খবরের জেরে বিশুয়া বাবুর চরম দুর্দশার কথা জানতে পেরে মঙ্গলবার আর্থিক সহযোগিতার পাশাপাশি চাল-ডাল দিয়েও সাহায্য করেন। এবং নির্বাচনের পর প্রতিবন্ধী সার্টিফিকেট ও ভাতার ব্যবস্থা করে দেবেন বলে আশ্বাস দেন।

Most Popular

ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল হাঙ্গামার কারণে বড় শাস্তি হল দুই ক্লাব আধিকারিকের

আধিকারিক ১৭৪ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছিলেন।দু’দলের সমর্থকদের মারামারিতে জড়িয়ে পড়ার একাধিক ভিডিয়ো দেখা যায়।ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল মাঠে সমর্থকদের হাঙ্গামার কারণে মৃত্যুর ঘটনায় বড় শাস্তি পেলেন...

জলের বোতলে অ্যাসিড পান করে সঙ্কটজনক শিশু, হাত জ্বলে গেল আর এক খুদের

গত ২৭ সেপ্টেম্বর পরিবারের এক সদস্যের জন্মদিন উদ্‌‌যাপন উপলক্ষে ওই রেস্তরাঁয় গিয়েছিলেন মহম্মদ আদিল নামে এক ব্যক্তি। তাঁর অভিযোগ, জলের বোতল দেন রেস্তরাঁর এক...

সবুজ বেনারসি ও গা ভর্তি গয়নায় সাজলেন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়, শাড়ির দাম শুনলে মাথা ঘুরে যাবে

চট্টোপাধ্যায়কে প্রতিটা সাজেই এত সুন্দর দেখায় যে, তা দেখে প্রেমে পড়ে যান অনুরাগীরা। আর তা হবে না কেন? অভিনেত্রীর সৌন্দর্যের কদর তো করতেই হবে।...

মাত্র ৬৯৯এ পেয়ে যান বার্বিকিউ, ইন্ডিয়ান, চাইনিজ, রকমারি ডেজার্ট। সব মিলিয়ে ৪০রকমের খাবার পেয়ে যাবেন আপনি।

পুজোয় ডান হাতের কাজ বন্ধ রাখা যায় না। ভোজনপ্রিয় বাঙালির কাছে এটা প্রায় দুঃসাধ্য। যাঁরা সারা বছর কড়া ডায়েটে থাকেন, তাঁরাও এই কটা দিন...

Recent Comments