Home আজকের খবর দীপাবলিতে অকাল দুর্গাপুজো বিষ্ণুপুরে

দীপাবলিতে অকাল দুর্গাপুজো বিষ্ণুপুরে

শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। এই ঘটনা ঠিক যেন ‘অকাল বোধনে’র অকাল বোধন। যখন চারদিকে কালী শক্তির আরাধনা আর আলোর উৎসবে মেতেছেন মানুষ। ঠিক তখনই এক প্রকার নিঃশব্দেই দেবী দুর্গার আরাধনায় মত্ত বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের বোলতলার পাটরাপাড়া রক্ষিত পরিবার।

গত দেড়শো বছরেরও বেশী সময় ধরে এখানে দীপান্বিতা অমাবস্যায় শুরু হয় দেবী দুর্গার বোধন। মা এখানে অসুরদলনী নন, নন সিংহবাহিনীও। এই সময় এখানে তিনি ঘরের মেয়ে উমা। লক্ষী, সরস্বতী, কার্তিক, গণেশ আর শিব সহ দুর্গা সপরিবারে পূজিতা হন এখানে।

শারদীয়া দুর্গোৎসবের মতোই এই সময় এখানে টানা চার দিন পুজো হয়। শুরুর দিন চাল কুমড়ো বলি প্রথাও চালু আছে রক্ষিত বাড়ির শিব-দুর্গার পুজোতে।  এই পুজো শুরুর ইতিহাসের সন্ধান করতে গিয়ে রক্ষিত পরিবার সূত্রে জানা যায়, প্রায় সাড়ে দেড়শো বছর আগে তাঁদের বংশের কোন এক সদস্যাকে দেবী দুর্গা স্বপ্নাদেশ দেন। যেখানে দেবী দুর্গা, শিব সহ লক্ষী, সরস্বতী, কার্তিক ও গণেশের মূর্তি তৈরী করে পুজোর নির্দেশ পান।

যেহেতু তিনি কালী পুজোর আগে স্বপ্নাদেশ পেয়েছিলেন, সেকারণে কালী পুজোর দিন থেকেই চার দিনের এই দুর্গোৎসবের সূচনা হয়। এই পুজোতে খুশি বাড়ির সবাই। এই সময় বাড়ির মেয়েরা পুজো কাটাতে বাড়ি ফেরেন৷ শ্বশুর বাড়িতে সবার সঙ্গে শারদোৎসবের দিন গুলি আনন্দে কাটানোর পর বাপের বাড়িতে এসে আবারও একটা দুর্গাপুজোর আনন্দ উপভোগের সুযোগ।

https://www.facebook.com/230205334351193/videos/2874998562743616

এযেন তাদের একটা অন্যরকম পাওনা। পুজোর দিন গুলিতে আত্মীয় স্বজন থেকে পাড়া প্রতিবেশী সকলেই হাজির হয়ে সমানভাবে আনন্দ করেন।

রক্ষিত পরিবারের সদস্যা মীরা রক্ষিত, মিনতি রক্ষিতরা বলেন, দেড়শো বছর আগে আমাদের বংশের এক গৃহকর্তীকে দেবী দুর্গা স্বপ্ন দেন। স্বপ্নাদেশ পেয়ে পুজো শুরু হয়। সেই প্রথা সমানে চলে আসছে। কার্তিক মাসের অমাবস্যা তিথিতে এই পুজো হলেও দুর্গা পুজার নিয়ম নীতি মেনেই পুজা হয়। হোম, যজ্ঞ, বলিদান, চণ্ডীপাঠ বাদ যায়না কিছুই।

টানা চার দিন সপ্তমী, অষ্টমী, নবমী, দশমীর পুজো শেষে সপ্তাহের শনি, রবিবার বাদ দিয়ে ঘট বিসর্জন হয়। বিষ্ণুপুরের এই দুর্গাপুজাকে ঘিরে রক্ষিত পরিবারের সদস্যরা যে যেখানেই থাকুননা কেন বাড়িতে আসেন। পাড়া প্রতিবেশীদের সঙ্গে পুজোর চারটে দিন আনন্দ ভাগ করে নেন তারা।

Most Popular

ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল হাঙ্গামার কারণে বড় শাস্তি হল দুই ক্লাব আধিকারিকের

আধিকারিক ১৭৪ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছিলেন।দু’দলের সমর্থকদের মারামারিতে জড়িয়ে পড়ার একাধিক ভিডিয়ো দেখা যায়।ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল মাঠে সমর্থকদের হাঙ্গামার কারণে মৃত্যুর ঘটনায় বড় শাস্তি পেলেন...

জলের বোতলে অ্যাসিড পান করে সঙ্কটজনক শিশু, হাত জ্বলে গেল আর এক খুদের

গত ২৭ সেপ্টেম্বর পরিবারের এক সদস্যের জন্মদিন উদ্‌‌যাপন উপলক্ষে ওই রেস্তরাঁয় গিয়েছিলেন মহম্মদ আদিল নামে এক ব্যক্তি। তাঁর অভিযোগ, জলের বোতল দেন রেস্তরাঁর এক...

সবুজ বেনারসি ও গা ভর্তি গয়নায় সাজলেন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়, শাড়ির দাম শুনলে মাথা ঘুরে যাবে

চট্টোপাধ্যায়কে প্রতিটা সাজেই এত সুন্দর দেখায় যে, তা দেখে প্রেমে পড়ে যান অনুরাগীরা। আর তা হবে না কেন? অভিনেত্রীর সৌন্দর্যের কদর তো করতেই হবে।...

মাত্র ৬৯৯এ পেয়ে যান বার্বিকিউ, ইন্ডিয়ান, চাইনিজ, রকমারি ডেজার্ট। সব মিলিয়ে ৪০রকমের খাবার পেয়ে যাবেন আপনি।

পুজোয় ডান হাতের কাজ বন্ধ রাখা যায় না। ভোজনপ্রিয় বাঙালির কাছে এটা প্রায় দুঃসাধ্য। যাঁরা সারা বছর কড়া ডায়েটে থাকেন, তাঁরাও এই কটা দিন...

Recent Comments