Home উত্তর জানেন বিড়িকে ইংরেজিতে কী বলে, উত্তর জানেন না ৯০ শতাংশ,জানুন এই প্রতিবেদনে।

বিড়িকে ইংরেজিতে কী বলে, উত্তর জানেন না ৯০ শতাংশ,জানুন এই প্রতিবেদনে।

সিগারেটের থেকে দাম অনেকটাই কম হওয়ায় গ্রাম বা প্রত্যন্ত প্রান্তরে বিড়ির চাহিদা খুব বেশি। তবে বর্তমানে শহর বা শহরতলিতেও তামাকজাত নেশার জন্য বিড়ির চাহিদা অনেক।বিড়িকে অনেকেই হাতে তৈরি সস্তা সিগারেট বলে থাকেন। শুকনো তামাক পাতা সরাসরি কাগজে বা সুপারির পাতার ভিতরে পাতলা অংশে মুড়ে তৈরি করা হয় বিড়ি। দাম কম এবং হাতে বানানো যায় বলে গ্রামের কৃষক শ্রমিকের কাছে খুবই জনপ্রিয় ধূমপান সামগ্রি।বিড়ির কাঁচামাল তামাক উৎপাদনের জন্য পশ্চিমবঙ্গের বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, মেদিনীপুর এর আশেপাশের অঞ্চল এবং বাংলাদেশের রংপুর অঞ্চল বিখ্যাত।

এজন্য এসব অঞ্চলে বিড়ি শিল্পের ব্যাপক প্রসার ঘটেছে।১৭ শতকের শেষের দিকে ভারতে তামাক চাষ শুরু হওয়ার পর বিড়ি আবিষ্কার হয়েছিল। তামাক কর্মীরাই প্রথম উচ্ছিষ্ট তামাক নিয়ে পাতায় গুটিয়ে তা তৈরি করে। বাণিজ্যিকভাবে বিড়ির ১৯৩০ সাল থেকে ব্যাপক প্রসার ঘটে। বিংশ শতাব্দীর মাঝামাঝি সময়ে বিড়ি তৈরি একটি অত্যন্ত প্রতিযোগিতামূলক শিল্পে পরিণত হয়েছিলবিড়ির ইংরেজি জানে না অনেকেই। আর বিড়ির ইংরেজি শুনলে অবাক হবেন আপনিও।

আসলে বিড়িকে ইংরেজি বিড়ি-ই বলা হয়। তিনটি বানানের চল রয়েছে ইংরেজি বিড়ি লিখতে গেলে। তা হল BEEDI, BIDI, BIRI।৩ মিলিয়নেরও বেশি ভারতীয় বিডি তৈরিতে নিযুক্ত রয়েছে। একটি কুটির শিল্প হিসেবে বেশি বিখ্যাত। বিড়ির বিদেশেও চল রয়েছে। উত্তর আমেরিকা কিছু অংশে ব্রিটিশ যুক্তরাষ্ট্রে এর বিড়ির প্রচলব রয়েছে। তবে সিগারেটের সমান ট্যাক্স দিতে হয়।

Most Popular

পোস্ত কীভাবে এল? দেখুন বিস্তারিত

পেঁয়াজ বা রসুন ছাড়াই রান্না করা এই পদটি প্রতিটি বাঙালি পরিবারের সবচেয়ে সহজ, আরামদায়ক এবং প্রধান নিরামিষ খাবার। পোস্তবাঁটার (Posto Bata) অনন্য স্বাদ, কাঁচা...

রাস্তার ধারে গাছগুলিতে করা হয় সাদা রং ,তবে জানেন কি, কেনো করা হয় ?

রাস্তা দিয়ে পারাপার করার সময় চোখের সামনে অনেক কৌতূহল পূর্ণ জিনিসপত্র ধরা পড়ে। সেই সকল কৌতূহল জিনিসপত্র সম্পর্কে জানার ইচ্ছেও কম থাকে না। সেই...

মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচারের পর কেমন আছেন মুকুল রায়?

তাঁর মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার করতে হল। আপাতত তিনি বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।সূত্রের খবর, ভুলে যাওয়া থেকে শুরু করে, ব্যালেন্সিংয়ের সমস্যা হচ্ছে প্রবীণ...

শিয়ালদহ মেন শাখায় ট্রেনের দুর্ভোগ বেশ কিছু দিন ধরেই চলছে,নাজেহাল যাত্রীরা।

সকাল ১০.৪০ মিনিটে ডাউন ভাগীরথী এক্সপ্রেস শিয়ালদহ পৌঁছানোর কথা থাকলেও, ওই ট্রেন এ দিন বিকেল চারটের পর গন্তব্যে পৌঁছোয়। ক্ষোভে ফেটে পড়েন যাত্রীরা। সকাল...

Recent Comments