Home খবর ওটা কী, মানুষ না কুকুর! দেখে কী মনে হচ্ছে আপনার?

ওটা কী, মানুষ না কুকুর! দেখে কী মনে হচ্ছে আপনার?

আসলে এগুলি সবই চোখের ভ্রম। আর সেই দৃষ্টিভ্রমের কারণেই আমাদের অনেক সময় মাটিতে পড়ে থাকা দড়িকে সাপ বলে মনে হতে পারে!চেনা জিনিসও অনেক সময় আমাদের চোখকে ধোঁকা দেয়। এক মুহূর্তে মনে হয় এটা ওই বস্তুই, আবার ঠিক পর ক্ষণেই মনে হয়, না যেটা ভাবছিলাম আদতে সেটা ওই বস্তু বা বিষয় নয়। তবে যে ছবি নিয়ে সমাজমাধ্যমে সম্প্রতি হইচই পড়েছে, সেটি আসলে কোনও দড়ি বা সাপ নয়। দৃষ্টিভ্রম বটে।

আর সেই ভ্রম কাটিয়েই আপনার দৃষ্টি সঠিক বিষয়টিকে বেছে নিতে পারে কি না, এক বার চেষ্টা করে দেখবেন না কি!সাদাকালো একটি ছবি। দেখে বোঝাই যাচ্ছে শীতল কোনও জায়গা। কারণ ছবিতে বরফ পড়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। চার পাশে গাছপালা। সেই গাছ এবং পাতাও বরফে ঢাকা। তার মাঝেই দৌড়ানোর ভঙ্গিমায় একটা কিছু দেখা যাচ্ছে। আর ছবির আকর্ষণের কেন্দ্রই এই বস্তু। এটিকে দেখিয়েই সমাজমাধ্যমে প্রশ্ন ছুড়ে দেওয়া হয়েছে, ‘বলুন তো ওটা কী, মানুষ না কুকুর?’ এখানেই দৃষ্টির পরীক্ষা।

আপনার কী মনে হয়, ওটা কোনও মানুষ? না কি একটি কালোরঙা কুকুর? ছবিটি এমন ভাবে তোলা হয়েছে যাতে প্রথম নজরেই একটা ভ্রম তৈরি হয়। আর সেই ভ্রম কাটিয়ে আসল বিষয়টিকে চেনার চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেওয়া হয়েছে।জেনে নেওয়া যাক, আসলে ছবিতে ওটা কী। ছবিতে দৌড়ানোর ভঙ্গিমায় যেটিকে দেখা যাচ্ছে, আসলে সেটি একটি কুকুর। সেটি সামনের দিকে তাকিয়ে রয়েছে। ছবিটি এমন ভাবে তোলা হয়েছে যে, কুকুরে শরীরের অংশ আড়াল হয়ে গিয়েছে। যার জেরে প্রথম নজরেই মনে হতে পারে ওটি একটি মানুষ। বরফের উপর দিয়ে দৌড়াচ্ছেন। আর এটাই হল দৃষ্টিভ্রম।

Most Popular

পোস্ত কীভাবে এল? দেখুন বিস্তারিত

পেঁয়াজ বা রসুন ছাড়াই রান্না করা এই পদটি প্রতিটি বাঙালি পরিবারের সবচেয়ে সহজ, আরামদায়ক এবং প্রধান নিরামিষ খাবার। পোস্তবাঁটার (Posto Bata) অনন্য স্বাদ, কাঁচা...

রাস্তার ধারে গাছগুলিতে করা হয় সাদা রং ,তবে জানেন কি, কেনো করা হয় ?

রাস্তা দিয়ে পারাপার করার সময় চোখের সামনে অনেক কৌতূহল পূর্ণ জিনিসপত্র ধরা পড়ে। সেই সকল কৌতূহল জিনিসপত্র সম্পর্কে জানার ইচ্ছেও কম থাকে না। সেই...

মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচারের পর কেমন আছেন মুকুল রায়?

তাঁর মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার করতে হল। আপাতত তিনি বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।সূত্রের খবর, ভুলে যাওয়া থেকে শুরু করে, ব্যালেন্সিংয়ের সমস্যা হচ্ছে প্রবীণ...

শিয়ালদহ মেন শাখায় ট্রেনের দুর্ভোগ বেশ কিছু দিন ধরেই চলছে,নাজেহাল যাত্রীরা।

সকাল ১০.৪০ মিনিটে ডাউন ভাগীরথী এক্সপ্রেস শিয়ালদহ পৌঁছানোর কথা থাকলেও, ওই ট্রেন এ দিন বিকেল চারটের পর গন্তব্যে পৌঁছোয়। ক্ষোভে ফেটে পড়েন যাত্রীরা। সকাল...

Recent Comments